২০শে জুন রথযাত্রা উপলক্ষে অগণিত জনসমাগমে মুখরিত হয়ে উঠলো এই বাংলার শ্রীক্ষেত্র নদিয়ার মায়াপুরের ইসকন মন্দির চত্বর। প্রসঙ্গত ইসকন মন্দির থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরে রাজাপুরের প্রশান্তপল্লীতে জগন্নাথ মন্দির অবস্থিত। সেখান থেকে এদিন বিকেলে তিনটি রথ যথাক্রমে জগন্নাথ বলভদ্র ও সুভদ্রাকে নিয়ে পাড়ি দেয় অস্থায়ী মাসির বাড়ি ইনকন চন্দ্রোদয় মন্দিরে। এখানে নয়দিন থাকার পর বিগ্রহত্ৰয় পুনরায় ফিরে যাবেন রাজাপুরের মন্দিরে।

মায়াপুরের রথযাত্রায় সহস্রাধিক জনসমাগম

এই উপলক্ষে ভোগের আয়োজন ,দীপদান পাঠ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল দেখার মতো। প্রসঙ্গত রথযাত্রায় এবার শ্রীক্ষেত্র পুরিধাম থেকে এবার জগন্নাথ দেব ও সুভদ্রা মহারানীর রথের চাকা আনা হয়েছে মায়াপুরে যা ছিল এবারের অন্যতম আকর্ষণ। সর্বসাধারণের দর্শনের জন্য রাখাও হয়েছিল তা। এবার রথ যাত্রার সূচনায় বহু বিশিষ্টজনের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস, নদীয়ার জেলাশাসক শশাঙ্ক শেঠি,পুলিশ সুপার ঈশানি পাল, অতিরিক্ত জেলাশাসক এস ভি পাতিল ও আর পি মিনা,ইসকন মন্দিরের গুরু সন্ন্যাসী গৌরাঙ্গ প্রেম স্বামী প্রমুখ। প্রায় সহস্রাধিক ভক্তবৃন্দের সমাগমের ঢল এদিন লক্ষ করা গেল। এছাড়াও রথের শোভাযাত্রায় মানুষের আবেগ শোভাযাত্রাকে যারপরনাই বর্ণাঢ্য ও প্রাণবন্ত করে তুলেছিল। বলা বাহুল্য বাংলার অন্যতম সেরা আকর্ষণ ছিল এবারের ইসকনের রথযাত্রা উৎসব যা আক্ষরিক অর্থেই হয়ে উঠেছিল মহামানবের মিলন তীর্থ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

twenty − eleven =