শ্বশুরের বিরুদ্ধে বাড়ি ফাঁকা থাকলে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ নাবালিকা গৃহবধূর। এই ঘটনা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে নরেন্দ্রপুরে।
শ্বশুরের বিরুদ্ধে বাড়ি ফাঁকা থাকলে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ নাবালিকা গৃহবধূর

বাড়িতে কেউ না থাকার ফায়দা নিয়ে নাবালিকা পুত্রবধূকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ শ্বশুরের বিরুদ্ধে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার গড়িয়ায় এই ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় নরেন্দ্রপুর থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। নির্যাতিতা নাবালিকার অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমেছে নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশ, স্থানীয় সূত্রে খবর, এই ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত শ্বশুর। এমনকী নাবালিকার স্বামী সহ অন্যান্যরাও গা ঢাকা দিয়েছে বলে জানা গিয়েছে। পুলিশ ইতিমধ্যেই তাঁদের সন্ধান শুরু করেছে। তাঁদের দ্রুত খুঁজে বের করার চেষ্টা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।মাস ছয়েক আগে ওই নাবালিকার বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে শুরু হয় শ্বশুরের অত্যাচার। বাড়িতে কেউ না থাকলে ওই নাবালিকাকে শ্বশুর যৌন নির্যাতন করত বলে অভিযোগ। এমনকী গোটা ঘটনার কথা স্বামী ও শাশুড়িকে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। উলটে তাঁকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।নির্যাতিতার অভিযোগ, প্রতিদিন সবাই বাড়ি থেকে কাজে বেরিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর ফিরে আসত শ্বশুর। তখনই নাবালিকাকে একা পেয়ে তাঁকে যৌন নির্যাতন করা হত। এমনকী বিভিন্ন সময়ে শ্বশুর তাঁকে কু-ইঙ্গিত করত বলেই অভিযোগ ওই নাবালিকার। এমনকী যে যাতে বাড়ির বাইরে বেরোতে না পারে ও প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলতে না পারে, সেই কারণে তালা বন্ধ করে রাখা হত। এইভাবে দিনের পর দিন আমার উপর অত্যাচার করা হয়েছে। আমি অভিযোগ জানানোর পর আমার মাকে ফোন করে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। আমার মাকে যাচ্ছে তাই ভাষায় গালাগালি করা হচ্ছে। পুলিশ জানিয়েছে ব্যবস্থা নেবে। এখন দেখা যাক।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 + fourteen =