জেতার ৩মাসের মধ্যে কংগ্রেস ছেড়ে TMC-তে বাইরন, অভিষেকের হাত থেকে নিলেন দলের পতাকা
অভিষেকের হাত থেকে নিলেন দলের পতাকা, ছবি — অভীক পুরকাইত
জেতার ৩মাসের মধ্যে কংগ্রেস ছেড়ে TMC-তে বাইরন, ছবি — অভীক পুরকাইত

অভীক পুরকাইত — সোমবার দলের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় হাত থেকে তৃণমূলে পতাকা তুলে নেন বাইরন।
সাগরদিঘি উপনির্বাচনে কংগ্রেসে হয়ে জেতার তিন মাসের মধ্যে তৃণমূলে যোগ দিলেন বাইরন বিশ্বাস। সোমবার দলের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় হাত থেকে তৃণমূলে পতাকা তুলে নেন বাইরন। ঘাটালে তৃণমূলের নবজোয়ার কর্মসূচিতে দলে যোগ দিলেন সাগরদিঘির কংগ্রেস বিধায়ক। দলে যোগ দিয়ে বাইরন বলেন, তাঁর জেতার পিছনে কংগ্রেসের কোনও হাত নেই।বাইরন বিশ্বাসের এই দলবদল নিয়ে অভিষেক বলেন, ‘ভোটে জয়ের পর বাইরনের সঙ্গে আমার যোগাযোগ হয়েছিল। জনসংযোগ যাত্রাতেও আমাদের কথা হয়। বিজেপির বিরুদ্ধে তৃণমূলের লড়াই ছড়িয়ে দিতে বাইরন দলে যোগ দিলেন। আমি তাঁকে স্বাগত জানিয়েছি। বিজেপির বিরুদ্ধে তৃণমূলের সৈনিক হিসাবে জোর গলায় লড়াই করবেন।’
তৃণমূলে যোগদান প্রসঙ্গে বাইরন বলেন, ‘রাজ্যে যে উয়ন্নয়নের কর্মকাণ্ড চলছে তা আরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্যই এই সিদ্ধান্ত। সাগরদিঘির সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করেই আমি এই পদক্ষেপ করেছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি আগে তৃণুমূল থেকে টিকিট নিয়ে দাঁড়াতে চেয়েছিলাম, কিন্তু না পেয়ে আমি কংগ্রেসের হয়ে দাঁড়িয়েছি। আমি কারও সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করিনি। আমার জয়ে কংগ্রেসের কোনও ভূমিকা ছিল না। আমি ভোটে দাঁড়ালে আরও বেশি ভোটে জিতব। এই দলদল প্রসঙ্গে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী বলেন, ‘নির্বাচনে পরাজয়ের পর থেকে তৃণমূল চেষ্টা করছিল বাইরন বিশ্বাসকে দলে ফেরাতে। পরাজয় তারা কিছুতেই মেনে নিতে পারছিল না। তাই সব প্রচেষ্টা করেছে এই জয়কে বানচাল করতে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

six + nine =